গ্রেড-পে 2600 টাকা বাড়িয়ে 3200 টাকা হলেও উঠছে না অনশন

0
19

গতকাল শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন uuptwa শিক্ষক প্ৰতিনিধিরা। কিন্তু দীর্ঘ বৈঠকের পর তাঁরা সন্তুষ্ট হননি। তাই অনশন চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তই বহাল রেখেছেন তাঁরা।

fb img 15636189150835977154441755172174

গতকাল শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন যে সরকার তাঁদের দাবি মতো বেতন দিতে পারছে না আর্থিক কারণেই।কারণ সরকার যদি তাঁদের দাবি মতন বেতন কাঠামো পরিবর্তন করে তাহলে সরকারের 4000 কোটি টাকা মতন খরচ হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এত টাকা খরচ করার মতন সরকারে অবস্থা নেই।

একটি প্রতিবেদন বেরিয়ে এসেছে তাতে বলা হচ্ছে ৯০০ কোটি টাকা বাড়তি ব্যয়ভার নিয়ে তাঁদের গ্রেড-পে বাড়াতে সরকার রাজি। কিন্তু তাতে শিক্ষকরা রাজি হচ্ছেন না বলে আক্ষেপ পার্থবাবুর। প্রসঙ্গত, রাজ্য সরকার গ্রেড-পে ৬০০ টাকা বাড়িয়ে ৩২০০ টাকা করতে রাজি।

তাতে মাসিক কতো টাকা পর্যন্ত বেতন বাড়তে পারে দেখতে এখানে ক্লিক করুন।
কিন্তু তাতে উস্থির শিক্ষকরা এই আশ্বাসে রাজি নন। তাঁদের দাবি prt স্কেলের। গ্রেড পে 4200 এবং পে বেন্ড 9300 থেকে 34800।

উস্থির প্রতিনিধিরা তাঁদের সংগঠনের ১৪ জন সদস্যের বদলি নিয়েও দরবার করেছিলেন শিক্ষামন্ত্রীর কাছে। শিক্ষামন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন যে তাদের বদলি যদি বেআইনি ভাবে হয়ে থাকে তাহলে তা সোমবারের মধ্যে প্রত্যাহার করা হবে।

শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর অন্দোলনরত প্রাথমিক শিক্ষকরা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, যেহুতু শিক্ষামন্ত্রী তাঁদের দাবি মেটাতে পারেনি তাই এই অনশন কর্মসূচি চলতে থাকবে এবং 21 শে জুলাই দিনভর অন্তত 12 হাজার প্রাথমিক শিক্ষক গণ-অনশনে বসবেন বলেও অন্দোলনকারীদের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে৷

অর্থাৎ একদিকে যেমন 21 শে জুলাই মুখ্যমন্ত্রী শহীদ স্মরণে সভার প্রতি মিডিয়ায় নজর থাকবে ঠিক তেমনই নজর থাকবে শিক্ষকদের অনশনের দিকে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here