শিক্ষকদের আবার আন্দোলন,এবার tgt স্কেল

ন্যায্য বেতন আদায়ে শিক্ষকদের পায়ের শব্দে কাঁপছে রাজপথ।কিছু দিন আগেই প্রাথমিক শিক্ষকরা যোগ্যতা আনুযায়ী বেতন বৃদ্ধির দাবি নিয়ে টানা 15 দিনের য আন্দোলন এবং 14 দিনের অনশন কর্মসূচির পর সরকার নোটিশ জারি করে। যা নিয়ে আজও ধোঁয়াশা কাটেনি।

fb img 15671639658572147337134134075403

প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতট জট কাটতে না কাটতেই এবার সর্বভারতীয় বেতন কাঠামো tgt স্কেলের দাবিতে রাজপথে নামলেন বৃহত্তর গ্র্যাজুয়েট টিচার্স অ্যাসোসিয়েশনের বা bgt এর কয়েক হাজার শিক্ষক শিক্ষিকারা।

fb img 15671639716198845792598705240347

fb img 15671680535141315497066089888006

ইতিমধ্যেই রাজা সুবোধ মল্লিক স্কয়ারে ভিড় জমেত শুরু করেছেন শিক্ষকদের বড় অংশ৷Bgt এর দাবি, tgt স্কেল অনুযায়ী গ্র‍্যাজুয়েট শিক্ষকদের বেতন কাঠামো যা হওয়ার কথা, তা তুলনায় অনেক কম পান বাংলার উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা৷ পে-ব্রান্ড 9000 থেকে 80000 এবং গ্রেড-পে 4600 টাকা পাওয়ার কথা থাকলেও এখন বাংলার গ্র‍্যাজুয়েট শিক্ষক পান, পে-ব্রান্ড 7100 থেকে থেকে 37600 টাকা৷ সঙ্গে গ্রেড-পে 4100 টাকা৷

fb img 15671680664141310126940262181053

img 20190830 1758326359231332555344094

Ncte এর সর্ব ভারতীয় নিয়ম অনুযায়ী শিক্ষকদের তিনটি ভাগে বেতন দেওয়া হয়৷ pgt(পোস্ট গ্র‍্যাজুয়েট) ও tgt(ট্রেনড গ্র‍্যাজুয়েট) এবং prt (প্রাথমিক শিক্ষকদের)৷ মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের নির্ধারিত পোস্ট গ্র‍্যাজুয়েট ও গ্র‍্যাজুয়েট শিক্ষকদের সর্বভারতীয় বেতন কাঠামোর তুলনায় অনেক কম৷

এই বিষয় নিয়ে বারংবার শিক্ষকরা আন্দোলন করেছেন কিন্তু এর কোনও সমাধান হয়নি৷ আর তার জেরে আজ পথে নেমে দাবি আদায়ের কার্যত বাধ্য হয়েছেন তাঁরা৷

এর লেটেস্ট আপডেট কি বেরিয়ে আসে তা জানতে এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত ভিজিট করুন ।