ন্যায্য বেতনের দাবি নির্দিষ্ট ফিটমেন ফ্যাক্টরসহ কার্যত খারিজ ! এবার কি হবে ? ইঙ্গিত দিল UUPTWA !!

0
15

প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি নিয়ে সমস্যা কিছুতেই সমাধান হচ্ছে না। বিগত 26 শে জুলাই,2019 এর G.O. No. 510-SE/P/10M-06/09(Pt-I)TET DATED 26.07.2019 এর পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষা দপ্তর গত 13-ই সেপ্টেম্বর একটি লিখিত বিবৃতি প্রকাশ করে।কিন্তু ঐ বিজ্ঞপ্তিও প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি নিয়ে সমস্যার কোনও সমাধান আনতে পারে নি বরং আরও বাড়িয়েছে।

নির্দিষ্ট ফিটমেন ফ্যাক্টরসহ সহ ন্যায্য বেতন বৃদ্ধি এবং আরও কিছু  দাবি নিয়ে UUPTWA এর প্রতিনিধিরা  বিকাশভবনে গিয়েছিলেন গত কালকে। সেখানে তাঁরা শিক্ষামন্ত্রী ব্যক্তিগত সচিবের সঙ্গে দেখা করেন বলে জানা গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে নির্দিষ্ট ফিটমেন ফ্যাক্টর নিয়ে কথা হয় । কিন্তু উক্ত আলোচনায়নির্দিষ্ট ফিটমেন ফ্যাক্টর সহ বেতনের দাবি খারিজ কার্যত খারিজ করে দেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে।

 

শিক্ষামন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিবের সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে UUPTWA এর  রাজ্য সভাপতি সন্দীপ ঘোষ ও রাজ্য সম্পাদিকা পৃথা বিশ্বাস বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন…

“গত ২৬শে জুলাই প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি সংক্রান্ত যে G.O. টি প্রকাশ করা হয়েছিলো তার প্রেক্ষিতে শুধুমাত্র ১০০০টাকা গ্রেড পে বৃদ্ধি করা হয়েছে কিন্তু সঠিক ফিটমেন্ট ফ্যাক্টর প্রদানের জন্য সবরকম তথ্যসমৃদ্ধ কাগজপত্র প্রদান করা সত্ত্বেও P.S. বলছেন আপনারা যে ফিটমেন্ট ফ্যাক্টর চাইছেন তা ফিন্যান্সকে বোঝানো কার্যতঃ অসম্ভব এবং দ্বিতীয় যে option দেওয়া হয়েছিলো যে ২০০৬ থেকে notional effect দিতে হবে সেটা নাকি ‘improbable’… সরকার ১.১.২০১৬ থেকে notional effect দিতে প্রস্তুত…এরপর আর তারপক্ষে কিছু বলা সম্ভব নয় কারণ তিনি আর কিছু way out পাচ্ছেন না… ফলস্বরূপ মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ এর পরামর্শ তিনি দিয়েছেন…”

সংগঠনের তরফে আরও দাবি করা হয়েছে, “১লা অক্টোবর ২০১৯ নবান্ন থেকে পে কমিশন এর একটি  resolution এ দেখা যাচ্ছে পে কমিশনের effect সমস্ত সরকারী কর্মচারী, higher secondary education, secondary education, madrasah education কে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হলেও কোনো অজ্ঞাত কারণে সেখানে প্রাথমিকের কোনো উল্লেখ নেই!!!!!‌ এটি কি অনিচ্ছাকৃত ভুল নাকি এর পিছনে ও গভীর ষড়যন্ত্র রচিত হয়েছে??? এর বিরুদ্ধে ও UUPTWA এর তরফে শিক্ষাদপ্তরে আবেদন জমা দেওয়া হয়েছে! এর বিরুদ্ধে গর্জে উঠতে না পারলে ভবিষ্যতে হয়তো অশনিসংকেত প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য অপেক্ষা করছে!!

আর এই কারনেই নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকে প্রাথমিক শিক্ষকদের দাবী আদায়ে পুনরায় পথে নামার জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছে প্রাথমিক শিক্ষকদের সংগঠনটি। সংস্থার রাজ্য সম্পাদিকা পৃথা বিশ্বাস, রাজ্য সভাপতি সন্দীপ ঘোষ একটি বিবৃতি প্রকাশ করে তা জানিয়েছেন ।

 

ফলে যে আশা প্রাথমিক শিক্ষকদের মনে জাগছিল সেটা দিনের পর দিন ক্ষীণ হয়ে যাচ্ছে। তাঁরা আশা করেছিলেন যে হয়তোবা রোপা ২০১৯ ফর টিচার্স এ প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য কিছু থাকবে সেটা ক্রমশ কমে আসছে। যদি এখনও রোপা ২০১৯ ফর টিচার্স  এখনও প্রকাশ করা হয়নি ,যেটা এই মাসের শেষে অথবা নভেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে প্রকাশ পাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এখন দেখার বিষয় এই যে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি  নির্দিষ্ট ফিটমেন ফ্যাক্টর  অনুসারে হয় কি না

 

CLICK HERE FOR PRIMARY SCHOOL TEACHERS SALARY HIKE CALCULATORS

CLICK HERE FOR TEACHERS SALARY HIKE CALCULATORS IN 6TH PAY COMMISSION

 

CLICK HERE TO DOWNLOAD 6TH PAY COMMISSION SALARY CALCULATION EXCEL SHEET 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here