মামলাকারী TET সফল পরীক্ষার্থীদের নথিপত্র যাচাই 7 নভেম্বর, কিন্ত শূন্যপদ কোথায় ? আবার মামলা ?

0
10

দীর্ঘ দিন বাদে কিছু TET  প্রশ্নভুল পাস মামলাকারীদের মুখে হাসি ফুটেছিল যখন পর্ষদ তাঁদের (130) চাকরীর জন্য শুন্য পদের ঘোষণা করেছিল। 2014 সালের TET এর প্রশ্ন ভুল মামলার জন্য কোর্টের নির্দেশ মত প্রাথমিক পর্ষদ ফর্ম ফিলাপ করার নির্দেশ দেন এবংআগামী 7ই নভেম্বর তাঁদের নথিপত্র যাচাইয়ের জন্য ডাকা হয়েছে । কিন্তু এর মাঝে গভীর সমস্যায় পড়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা । কারণ যে ভ্যাকেন্সি পর্ষদ প্রকাশ করেছে সেখানে কোনও জেনেরাল বা OBC এর জন্য শুন্য পদ নেয় । ফলে মামলাকারীদের মধ্যে এখন চরম হতাশা। তাঁরা এখন কি করবে সেটা বুঝে উঠতে পারছে না। ফলে এই সমস্যা সমাধানের জন্য তাঁরা পর্ষদ না আদালতের দ্বারস্থ হয় সেটাই দেখার।

 

 

অপর দিকে এই মামলাটি আবার কোর্টে 15ই নভেম্বর আবার আদালতে উঠবে। সেই দিন আবার এই মামলা নিয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সামনে আসতে পারে। কারণ যে 175 জন মামলাকারীর কথা জানা গিয়েছিল তার মধ্যে 130 জন উৎকীর্ণ হয়েছিল এবং প্রায় 45 জন অনুত্তীর্ণ হয়েছেন।ফলে তাঁদের কি হবে তার উত্তর হয়তো বা 15 ই নভেম্বর পাওয়া যেতে  পারে !

 

এই মামলার রায় গত 2018 সালের 3 রা অক্টোবর
বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায় নির্দেশ দেন 2014-র বিজ্ঞপ্তি অনুয়ায়ী 2015 সালে যে TET পরীক্ষা হয়েছিল তাতে 6 টি প্রশ্নের উত্তর ভুল রয়েছে । তার জন্য যে সমস্ত প্রার্থী উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করেছেন তাঁদের প্রত্যেককে নম্বর দিতে হবে। এবং সমস্ত দিক বিবেচনা করে 3 মাসের মধ্যে তাদেরকে চাকরিতে নিযুক্ত করতে হবে। কিন্তু পরে এই মামলার জন্য কোনটেম্পট অফ কোর্ট অর্ডার হয়,এরপর ঐ মামলা সুপ্রিম কোর্টে যায়,এর পর ফের কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ এ উঠে গত 14 আগষ্ট। এবং সেখানে মাননীয়া বিচারপতি নির্দেশ দেন যে,প্রাথমিক শিক্ষা সচিবকে 19 সেপ্টেম্বর কোর্টে তলব করেন । কিন্তু ঠিক তার একদিন আগেই প্ৰাথমিক পর্ষদ ঐ কেসের মামকারীদের রেসাল্ট প্ৰকাশ করে। এবং এরপর জেলাজুড়ে একটি শুন্য পদের নোটিশ প্রকাশিত করে। সেই নিয়েই এই আপডেট ।
ফলে এই নিয়ে আগামী 7ই নভেম্বর বা তার আগে কিছু হয় কি না সেটাই দেখার।

screenshot 20190927 0723443130249091962162869

 

TO READ MORE PRIMARY TET COURT CASE AND PRIMARY TEACHERS RECRUITMENT NEWS CLICK HERE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here