43000 TET Candidates document-ফের ৪৩ হাজারের নথি তলব,টেট মামলায় রাজ্যের আবেদন খারিজ! মানিক ভট্টাচার্য ডিভিশনে,very big news

2
66

43000 TET Candidates document– এই মুহূর্তে প্রাথমিকের {2014 primary tet court case} তিনটি মামলার গুরুত্বপূর্ণ আপডেট সামনে এসেছে। একটি জনস্বার্থ মামলা ,অন্যটি হল চাকরি হারানো ২৬৯ জনের মামলা এবং অন্যটি হল প্রাক্তন পর্ষদ সভাপতির মানিক ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চের মামলা! এর সঙ্গে পর্ষদের ফের ৪৩ হাজারের কর্মরত{43000 TET Candidates document} শিক্ষকের নথি তলব নিয়ে একটি নোটিশ সামনে এসেছে, তাঁর আপডেট শেয়ার করা হচ্ছে!

আজকে প্রাথমিকের একাধিক মামলা ওঠে কোর্টে। সেই সমস্ত মামলার আপডেট নীচে শেয়ার করা হল।

43000_TET_Candidates_document
43000 TET Candidates document{file image}

43000 TET Candidates document

কিছু দিন আগেই বিভিন্ন ডিপিএসসি কর্মরত শিক্ষক/শিক্ষিকা কাছ থেকে নথি তলব করেছিল। ফের একবার একটি নোটিশ সামনে এসেছে সেখানে রাজ্যে ৪৩ হাজার কর্মরত প্রাথমিক শিক্ষক/শিক্ষিকাদের নথি জমা দিতে বলল প্রাথমিক পর্ষদ। এই মর্মে সমস্ত ডিপিএসসিদেরকে নোটিশ করা হয়েছে। ২০১৪ টেট পাশ প্রার্থীদের থেকে ২০১৭ সালে ঘোষিত ৪২৯৪৯ {43000 TET Candidates document} টি শুন্যপদে নিযুক্ত শিক্ষক/শিক্ষিকার টেটের রোল নাম্বার চেয়ে পাঠিয়েছে C.B.I এর তদন্তকারী অফিসার।সেই মর্মে তথ্য চেয়ে সমস্ত প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের প্রতি নির্দেশ পাঠিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

গত সোমবার এই {43000 TET Candidates document} সংক্রান্ত বিষয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে পর্ষদ। সেই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে ৪২,৯৪৯ শিক্ষক নিয়োগের বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। তাই জরুরি ভিত্তিতে এক্সেল শিটে ৪২,৯৪৯ {43000 TET Candidates document} জন শিক্ষককেই তাঁদের নিয়োগ সংক্রান্ত নথি সংসদকে পাঠাতে হব। নীচে নোটিশটি দেওয়া হল।

43000 TET Candidates document

43000_TET_Candidates_document
43000_TET_Candidates_document

নোটিশে বলা হয়েছে যে ঐ শূন্য {43000 TET Candidates document} পদের নিরিখে যাঁদের নিয়োগ করা হয়েছে তাঁদের নাম এবং টেট রোল নাম্বার পর্ষদে জমা করতে হবে ১৩/০৭/২০২২ এর মধ্যে, এক্সেল শিটে।

মানিক ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চ মামলা– আজকে কোর্টে ডিভিশন বেঞ্চে মামলা দায়ের করেন প্রাক্তন পর্ষদ সভাপতি মানিক ভট্টাচার্য। সেই মামলা নিয়ে আজকে কোর্টে দ্বারস্থ হন মানিক বাবু। তিনি কোর্টে আজকে নিজের বক্তব্য পেশ করেন। তিনি বলেন “আমি একজন জনপ্রতিনিধি। আমাকে নীতিহীন ব্যক্তি বলে অভিহিত করা হচ্ছে! হলফনামা দেওয়ার সুযোগ না দিয়েই বিরূপ মন্তব্য করা হয়েছে।”

এ দিন এজলাসে মানিক ভট্টাচার্যের আইনজীবী সওয়াল করেন, তাঁর মক্কেলকে অপসারণের নির্দেশ সিঙ্গল বেঞ্চ দিতে পারে না। এটা সিঙ্গল বেঞ্চের এক্তিয়ার বহির্ভূত বিষয়! তখন বিচারপতি প্রশ্ন করেন, যদি দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে তা হলেও আদালতে পারে না?

এর ফের ফের মানিক ভট্টাচার্য তাঁর আইনজীবীর মাধ্যমে সওয়াল করেন এবং তিনি বলেন- “এই মামলায় আমার নিয়োগ নিয়ে কোনও প্রশ্ন ওঠেনি। নিয়োগকারীকে নিয়েও প্রশ্ন ওঠেনি। তাই যে পদ্ধতিতে আমাকে অপসারিত করা হয়েছে সেই পদ্ধতি সঠিক নয়।” তাঁর আরও সওয়াল, “আদালত সমান্তরাল তদন্ত চালাতে পারে না। এক দিকে সিবিআই তদন্ত করবে, আবার পাশাপাশি, আদালতও তদন্ত করবে, এটা হয় না।”

প্রাথমিকে নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগে জনস্বার্থ মামলা- আজকে ফের প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি হয়েছে এই অভিযোগ তুলে যে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছিল তাঁর শুনানি ছিল ডিভিশন বেঞ্চে। রাজ্য এই মামলা নিয়ে নিজের বক্তব্য আজকে পেশ করে। রাজ্যের বক্তব্য হল- ২০১৭ সালের তাঁদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে তাঁর পর হটাৎ করে ৫ বছর পর কোনও রাজনৈতিক চরিতার্থ সিদ্ধ করতে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে। রাজ্য কোর্টের কাছে এই মামলার গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন করে এই মামলা খারিজ করার জন্য আবেদন করে। কিন্তু কোর্ট রাজ্যের সেই আবেদনকে খারিজ করে দেয়। এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে আগামী ১৬ই আগস্ট। সেই দিন পর্ষদকে ফের হলফনামা পেস করতে কোর্ট নির্দেশ দেয়।

WBSSC Teachers Recruitment 2022-ভালো খবর দ্রুত মেধাতালিকা প্রকাশ হতে চলেছে | এর সঙ্গে উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ প্রক্রিয়া !- এখানে ক্লিক করুন।

২৬৯ জনের আপিল মামলা-আজকে এই মামলাটি কোর্টে উঠেছিল,এই মামলার শুনানিতে মামলাকারীদের আইনজীবী,সিঙ্গেল বেঞ্চের বিরুদ্ধে একাধিক প্রশ্ন তুলেন। কোন অধিকারে একক বেঞ্চ চাকরি বাতিল করে? আদালত কি শিক্ষক নিয়োগ করে? প্রশ্ন উঠল হাইকোর্টে। এর সঙ্গে আদালত কি স্কুল চালায়। আদালত কি শিক্ষক নিয়োগ করে এও প্রশ্ন তোলা হয়।

কিছুদিন আগে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় সিঙ্গেল বেঞ্চ বেশকিছু শিক্ষকের চাকরি বাতিল করেন। সেই রায়ের বিরুদ্ধে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হন কিছু বরখাস্ত শিক্ষক। আজ সেই মামলা ওঠে আদালতে।

মামলাকারীদের পক্ষের আইনজীবীদের বক্তব্য, তাঁদের মক্কেলেরা ৫ বছর ধরে শিক্ষকতার কাজ করছেন,তাঁদেরকে আদালত এক কথায় বহিষ্কার করতে পারে না! উত্তরে বিচারপতি সুব্রত তালুকদার বলেন, এখনও স্বাভাবিক ন্যায়বিচার লঙ্ঘনের মতো ঘটনা ঘটেনি। যারা নিজেদেরকে বঞ্চিত বলে মনে করছেন{যাঁদের চাকরি বাতিল হয়েছে}, তাঁরা সিঙ্গেল বেঞ্চে যান, সেখানেই তাঁরা সুবিচার পাবেন। সেখান থেকেই তাঁরা চাকরি ফেরত পেয়ে পরিজনদের কাছে ফিরে যাবেন। এই মামলার পরবর্তী শুনানি এই মাসের মধ্যেই হবে !

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে আরও আপডেট পেতে এখানে ক্লিক করুন। টেট নিয়ে এবং পর্ষদের লেটেস্ট নোটিশ দেখতে এখানে ক্লিক করুন

FAQs

প্রাথমিক টেট ২০১৪ সালের টেট বলতে কোনটা বলা হচ্ছে?

যেই টেট পরীক্ষা পর্ষদ ২০১৫ সালের ১১ই অক্টোবর নিয়েছিল।

কত জন ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষার জন্য ফর্ম ফিলাপ করেছিল?

আনুমানিক প্রায় ২৩ লক্ষ ।

কত জন ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষা দিয়েছিল?

আনুমানিক প্রায় ২০ লক্ষ ।

কত জন ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষা পাস করেছিল?

আনুমানিক প্রায় ১ লক্ষ ২৫ হাজার ।

কবে ২০১৪ প্রাথমিক টেটের রেজাল্ট প্রকাশিত হয়েছিল?

১৪/০৯/২০১৬

২০১৪ টেটের শূন্য পদ কত ছিল?

প্রায় ৪২,৯৪৯টি {কোর্টের জমা করা রিপোর্ট অনুসারে}।

2 COMMENTS

  1. দেখতে পাচ্ছে হাপেরো বেশি টাকা দিয়ে হয়েছে আমাদেরি দেখা টাকা নিয়ে করেছে অনেক গুলো তাহলে প্রমাণিত যখন হয়েছে তখন ওদের বাদ দিয়ে যারা অনশন করছে তাদের চাকরি তে ডুকিয়ে দিন ওই ছেলে গুলো র কথা ভাবুন নেতারা, এমেলে রা টাকার জন্য দরকার হলে নিজেদের মেয়ে কেও বিক্রি করে দিবে । তাই আদালতে র কাছে আবেদন কিছু টাকা খেয়ে রাজ্য সরকারের কাছে কেশ টা বানচাল করবেন নাই

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here