Big Breaking News-৬৮ নম্বর পেয়েও টেট পাশ!68 Marks Primary Tet Pass! নজিরবিহীন নির্দেশ বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের!

2
67

68 MARKS PRIMARY TET PASS-এই মুহূর্তে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে একটি খুবই বড় খবর সামনে আসছে। এবার নজিরবিহীন নির্দেশ দিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের তথ্য অনুযায়ী টেট ফেল করেছেন ওই চাকরি প্রার্থী, যদিও আসল (68 Marks Primary Tet Pass) OMR সামনে আনতে পারেননি পর্ষদ। একজন চাকরি প্রার্থী অভিযোগ করে যে সে ইন্টারভিউ দেওয়া সত্ত্বেও প্রাথমিক শিক্ষক রূপে তাকে নিয়োগ করা হচ্ছে না !এই নিয়ে তিনি মাননীয় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় এর বেঞ্চে মামলা করেন! ordar

তিনি যে গ্রাউন্ডে মামলা করেন সেখানে তিনি তুলে ধরেন যে ডাটা তুলে ধরছে পর্ষদ সেটা সবটাই হচ্ছে ডিজিটাল ডাটা ! যার মান্যতা কোর্ট এখনও দেয়নি! এখন এই ডাটা নিয়ে সিবিআই তদন্ত করছে। অর্ডার কপি ডাউনলোড করতে হলে এখানে ক্লিক করুন!

এই মামলার সূত্রপাত হয় যখন মহুয়া খাতুন নামে একজন চাকরিপ্রার্থী কোর্টে দারস্ত হন যে সে 2020 সালে 16500 শিক্ষক নিয়োগের জন্য ইন্টারভিউ দেওয়া সত্বেও ,সে চাকরি পাননি !তাকে অবিলম্বে চাকরি দেওয়া হোক এই দাবি তুলে তিনি মামলা দায়ের করেন।

Big Breaking News-68 Marks Primary Tet Pass!

68 MARKS PRIMARY TET PASS
68 MARKS PRIMARY TET PASS

তিনি পর্ষদের কাছে আরটিআই ও ফাইল করেন! এরপর পর্ষদের তরফ থেকে জানানো হয় যে তার টেট পাস করার জন্য যে পর্যাপ্ত পরিমাণ নাম্বার দরকার সে নাম্বরটি তার নেই!

পর্ষদ নোটিশ দিয়ে জানাই যে একজন সংরক্ষিত প্রার্থীর টেট পাস করতে দরকার ৮২ নাম্বর! কিন্তু ওই চাকরি প্রার্থীর নাম্বর হচ্ছে ৬২ ,এর সঙ্গে প্রশ্ন ভুলের ৬ নম্বর যোগ করলে নাম্বরটি দারায় ৬৮, যা ৮২ থেকে অনেক কম! তাই যেহেতু (68 Marks Primary Tet Pass) সে টেট পাস করেনি তাই চাকরি দেওয়ার কোন প্রশ্ন আসছে না!

এরপর মাননীয় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় পর্ষদের কাছে প্রশ্ন তোলেন ,যে ডাটার উপর ভিত্তি করে এই তথ্যগুলি দেওয়া হচ্ছে সেগুলি সবই ডিজিটাল ডাটা ! যার মান্যতা এখনো কোর্ট দেয়নি। যে ডাটা নিয়ে এখনো সিবিআই তদন্ত করছে, তাই এই ডাটা যে সঠিক সেটা কিন্তু কোর্ট বা পর্ষদ কেউই বলতে পারবে না। তাই বেনিফিট অফ ডাউট হিসেবে চাকরি দেওয়ার জন্য যে পরবর্তী পদক্ষেপ দরকার সেটা শুরু করতে হবে।

68 MARKS PRIMARY TET PASS
68 MARKS PRIMARY TET PASS

কোর্ট আরো জানাই যেহেতু ওই চাকরিপ্রার্থীকে ২০২০ সালে ইন্টারভিউতে ডাকা হয়েছিল তাই এটা ধরে নিতে হবে যে ওই চাকরিপ্রার্থী টেট পাস করেছে ! যদি সে টেট ফেল করত তাহলে কোন মতেই তাকে পর্ষদ ইন্টারভিউতে ডাকত না। তাই যেহেতু সে একবার ইন্টারভিউ দিয়েছে বেনিফিট অফ ডাউট হিসাবে এটা ধরেই নেওয়া যেতে (68 Marks Primary Tet Pass) পারে যে সে টেট পাস করেছে ! কিন্তু বর্তমানে প্রাথমিক পর্ষদ যে ডাটা দিচ্ছে সেই সব ডাটা গুলো ডিজিটাল ডাটার উপর ভিত্তি করে! তাই এর মান্যতা দেওয়াটা খুবই কঠিন !

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ এবং প্রাইমারি শিক্ষকদের ওয়েটেজ নির্ণয় করতে হলে এখানে ক্লিক করুন!

বেনিফিট অফ ডাউট হিসেবে ওই চাকরিপ্রার্থীকে চাকরি দেওয়া সুপারিশ করা হয়েছে !তবে চাকরি পাওয়ার যে পরবর্তী পদক্ষেপ সেটা পর্ষদ ঠিক করবে! অপরদিকে আজকে পর্ষদের আইনজীবী যিনি ছিলেন তিনি জানিয়েছেন যে পর্ষদের ওই ডিজিটাল ডাটার উপর ভিত্তি করে এখন অনেক জন চাকরি করছেন প্রশ্ন ভুল মামলা থেকে তাদেরকে পর্ষদ সবাইকে পাস হিসেবে গণ্য করেছে! তাহলে ঐ সমস্ত চাকরির ক্ষেত্রে যদি ডিজিটাল ডাটার মান্যতা দেওয়া হয় ,তাহলে এখন কেন ডিজিটাল ডাটার মান্যতা দেওয়া হচ্ছে না??

কোর্ট নিজের পর্যবেক্ষণ এই সমস্ত বিষয়কে উপেক্ষা করে জানিয়েছে যেহেতু তাকে একবার ইন্টারভিউতে ডাকা হয়েছে তাই 68 পাওয়া সত্ত্বেও তাকে টেট পাস হিসাবে গণ্য করা হচ্ছে এবং নিয়োগের যে পরবর্তী পদক্ষেপ সেটা শুরু করতে বলেছে পর্ষদ কে চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে! নিয়োগের স্টেপগুলি আছে সেগুলি যেন শুরু করা হয়। মামলার গতিপ্রকৃতি দেখে আমরা এটা ধারণা করছি যে এই মামলাটি কিন্তু ডিভিশন বেঞ্চে অবশ্যই যাবে!

আপনারা জানেন যে গতকালকেই ডিভিশন বেঞ্চ এটা ঠিক করতে পারিনি যে ৮২ নাম্বার পেতে পাস হবে না ৮৩ নাম্বার পেয়ে পাশ হবে! সেই মামলা আরো বৃহত্তর বেঞ্চে গিয়েছে! যেখানে মাননীয় প্রধান বিচারপতি বেঞ্চ এই মামলা শুনবেন! অপরদিকে আজকে যে ডাটা এসেছে সেখানে কিন্তু খুবই একটি উল্লেখযোগ্য প্রশ্ন রাখছে যে যেখানে ৮২ বা ৮৩ নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে সেখানে কিভাবে একজন ক্যান্ডিডেট ৬৮ পেটে (68 Marks Primary Tet Pass) পাস করতে পারে?? কারণ এই মামলার ফলে অনেক নতুন করে মামলা দায়ের করবে! এর ফলে এই মামলার দরজা খুলে যেতে পারে বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করছে!!

2 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here