এনসিটিই ছাড়পত্র দেয়নি, পশ্চিমবঙ্গে ইন্টিগ্রেটেড বিএড কোর্স চালু নিয়ে অনিশ্চয়তা

0
126

ইন্টিগ্রেটেড বিএড কোর্স বা চার বছরের বিএড কোর্স নিয়ে রাজ্যের ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া মিলেছিল। কারণ তাঁরা একই সঙ্গে বিএ/বিএসি করার সঙ্গে সঙ্গে তারা বিএড ডিগ্রীও পেয়ে যাচ্ছিল ফলে তাঁদের কে আলাদা আলাদা ভাবে দুটি কোর্স করতে করতে হতে না।

কিন্তু এই কোর্স চালু করার বেপারে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে চরম অনিশ্চিয়তা তৈরি হয়েছে। কারণ, যে সব রাজ্যে তা চালু করতে কেন্দ্র অনুমতি দিয়েছে, তাতে পশ্চিমবঙ্গের নাম নেই। তাছাড়া সাধারণ ডিগ্রি কলেজে সেটি চালু করার জন্য যে সব শর্ত দেওয়া হয়েছে, তা মানা কার্যত অসম্ভব বলেই মনে করছেন শিক্ষকরা। ফলে পুরো প্রক্রিয়াই এখন থমকে।

চার বছরের এই কোর্স চালু করার বিষয়ে রাজ্য  অনেকটা প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছিল কিন্তু শেষমেশ ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশন (এনসিটিই)-এর ২০১৯ আইন অনুযায়ী বিএড কলেজগুলি এমন কোর্স চালু করতে পারবে না। এই চার বছরের কোর্স সাধারণ ডিগ্রি কলেজে চালু করা হোক এই দাবি রাখে এনসিটিই।  ফলে এত তাড়াতাড়ি ঐ পরিকাঠামোর গঠন প্রায় অসম্ভব । লে তা এখনই চালু করাও সম্ভব নয়।

যে সমস্ত রাজ্য এবং কলেজ গুলোকে এই কোর্সের অনুমোদন মিলেছে তা নীচে দেওয়া হল।

Annotation 2019 08 09 075927Annotation 2019 08 09 075948

সাধারণ ডিগ্রি কলেজে করে যদি এই কোর্স চালু করতে  হয় তাহলে প্রচুর শিক্ষক দরকার । কারণ প্রতি ৫০ জন পড়ুয়া পিছু ৮  করে শিক্ষক দরকার। ফলে ছাত্র ছাত্রী সংখ্যা বৃদ্ধি পেলেও শিক্ষকের অভাব কিবাভে এত তাড়াতাড়ি মিটবে সেই চিন্তাই এখন কলেজ গুলো ।

তাছাড়া বিএড কোর্সের জন্য পৃথক বিল্ডিংও এবং আলাদা পরিকাঠামো, লাইব্রেরি ইত্যাদি প্রয়োজন ।  তাই সমস্ত নিয়ম  মেনেই  এই কোর্স চালু করা হবে বলে জানা যাচ্ছে তাঁর জন্য একটু দেরি হলে হোক কারণ যদি নিয়ম না  মেনে কেউ এই কোর্স চালু করলেও, পরে তার স্বীকৃতি মিলবে না সেই প্রশ্নও থেকে যাবে। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here