বকেয়া ডিএ এবং পে কমিশন নিয়ে নীরবতা কবে ভাঙবে ? 31 আগস্ট বৈঠক কিছু সম্ভবনা আছে ?

0
32

একদিকে বকেয়া ডিএ এবং ষষ্ঠ বেতন কমিশন কার্যকর উভয়ের চাপে সরকার এখন নীরব। কিছুদিন আগে বেতন কমিশনের চেয়ারম্যান এবং মুখ্যমন্ত্রী বৈঠক এর পর ষষ্ঠ বেতন কমিশন নিয়ে অনেক আপডেট বেরিয়ে আসছিল যে খুব তাড়াতাড়ি পে কমিশনের রিপোর্ট জমা পরবে।কিন্তু যেই দিন থেকে sat(স্টেট এডমিনিষ্ট্রটিভ ট্রাইবুনাল) বকেয়া ডিএ প্রদান সহ কেন্দ্রীয় হারে বছরে দুই বার ডিএ প্রদানের কথা জানিয়েছে সেই দিন থেকে রাজ্যসরকারের ডিএ নিয়ে নীরব।

জানা যাচ্ছে রাজ্য সরকার ডিএ মামলার সার্টিফায়েড কপি পর্যন্ত তুলে নি। স্যাটের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আপিল করতে হলে ঐ সময় সার্টিফায়েড কপি জমা দিতে হয় বলে জানা যাচ্ছে।

কিছুদিন আগে অবশ্য মামালাকারীরা সার্টিফায়েড কপি সংগ্রহ করে নেয় এবং সংগঠনের পক্ষ থেকে ওই কপির একটি প্রতিলিপি নবান্নে জমা দেওয়া হয়েছে।

রাজ্যের কর্মচারীরা দ্বিধাগ্রস্ত যে সরকার ঐ ডিএ মামলা নিয়ে কি ভাবছে । যদিও সরকারে হাতে তিন মাস সময় আছে এই মামলা নিয়ে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপি নেয়ার জন্য।

 

ertety1কিছুদিন আগে রাজ্য সরকারকে বকেয়া ডিএ নিয়ে আদালতের রায় কার্যকর করার জন্য মামলাকারী সংগঠন কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজ সহযোগিতার প্রস্তাব দিল সরকারকে।

যদি আপনি 14.3 % হারে আপনার বেতন বৃদ্ধি দেখতে চান তাহলে এখানে click করুন ।

 

কিন্তু দেখা যাচ্ছে ডিএ মামলার রায়ের পর সরকার ধীরগতি চল নীতি অবলম্বন করেছে। কারণ আদালতের রায় মেনে যদি বকেয়া ডিএ মেটানো হয় এবং ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ একসঙ্গে কার্যকর করা হয়। তাহলে বিশাল অঙ্কের টাকা প্রয়োজন। যা এখন সরকারের কাছে যোগাড় করা খুব কঠিন বলে মনে করছেন অনেক রাজনৈতিক মহল।

2016 থেকে যদি নোশনাল পে ফিক্সাশন হলে কতটা আপনার বেতন বৃদ্ধি হবে দেখেতে এখানে ক্লিক করুন।

 

শুধু পে কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করতে হলে বছরে অতিরিক্ত প্রায় সাড়ে বারো হাজার কোটি টাকা লাগবে বলে খবর তারপর এর সঙ্গে বকেয়া ডিএ যোগ হলে টাকার অঙ্ক অনেকটা বেরে যাবে।   এত টাকা কোথা থেকে আসবে? সেই প্রশ্নও এখন ঘুরপাক কাছে প্রশাসনিক মহলে বলে জানা যাচ্ছে !

 

গত ১৭ অগস্ট মহাজাতি সদনে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের নিয়ে সেখানে একটা সভা করা হবে বলে আগে জানা গিয়েছিলো এবং সেই সভার দিকে তাকিয়ে ছিলেন লক্ষ লক্ষ সরকারি কর্মচারী। তাদের আসাছিল হয়তোবা সেখানেই বেতন কমিশন নিয়ে আলোচনা হবে। কিন্তু সেই সভা বাতিল হয়ে অবশেষে আগামী ৩১ আগস্ট মন্ত্রী  শুভেন্দু অধিকারীর উদ্যোগে রাজ্য সম্মেলন করার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

TO SEE 6TH PAY COMMISSION SALARY HIKE ACCORDING TO PAY MATRIX CLICK HERE

ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ এখনও রাজ্য সরকারের কাছে জমা পড়েনি। রাজ্য সরকারি কর্মী মহলে একটা আশা রয়েছে, আগামী বছরের শুরু থেকে হয়তোবা বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর হবে এবং বর্ধিত বেতন হাতে পাবেন । কিন্তু স্যাটের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করা নিয়ে কোনও সমস্যা তৈরি হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। ফলে বেতন কমিশন এবং বকেয়া ডিএ প্রবল চিন্তাই এখন সরকারি কর্মচারীরা !! 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here