আজ পৃথা বিশ্বাস প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি নিয়ে কি বার্তা দিলেন,দেখুন সম্পূর্ণ আপডেট বেতন বৃদ্ধি নিয়ে।

NEWS-2020
NEWS-2020

প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি কোন ফর্মুলা মেনে হচ্ছে তা জানতে বিকাশ ভবন গিয়েছিলেন uuptwa নেতৃত্বরা গতকাল । কারণ হচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্যে এই বেতন কাঠামো বৃদ্ধি নিয়ে চরম ধোঁয়াশার সৃষ্টি হচ্ছে। রাজ্য সরকার বেতন বৃদ্ধির জন্য নোটিশ জারি করলেও কোন নিয়ম মেনে এই বেতন বৃদ্ধি হবে তা এখন পরিষ্কার নয় শিক্ষকদের কাছে।ফলে তাঁদের মধ্যে এই বেতন বৃদ্ধি নিয়ে ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে।

আজ uuptwa সম্পাদিকা পৃথা বিশ্বাস তাঁর অভিমত ব্যক্ত করেছেন ঐ সমস্যা নিয়ে । তিনি আজ বার্তা দিয়েছেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছে।তিনি জানিয়েছেন যে,
“চারিদিকে প্রচুর হিসেবনিকেশ চলছে।তা চলুক, কিন্তু স্পষ্ট নির্দেশিকার অপেক্ষায় থাকব আমরা।রাস্তার আন্দোলন,কিভাবে হয় গত দেড়বছরে উউপ্ত্বা বার বার দেখিয়েছে।প্রয়োজনে আবারো রাস্তায় নামতে হতে পারে,কিন্তু সেটা অনুমানের ভিত্তি তে নয়।প্রস্তুত থাকুন, জেলা নেতৃত্বের সংগে যোগাযোগ রাখুন।একটাই অনুরোধ অধৈর্য হবেনা।”
অর্থাৎ uuptwa নেতৃত্বও বার বার একটা স্পষ্ট নির্দেশিকার জন্য অপেক্ষা করছেন। তাঁরা গত কাল কোন ফর্মুলা মেনে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি করা হবে তা জানতে বিকাশ ভবন গিয়েছিলেন।

সেখানে তারা গিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর personal secretary এবং বিকাশ ভবনের joint secretary সঙ্গে দেখা করেন বলে জানা গিয়েছে।

সন্দীপ ঘোষ যেটা জানিয়েছেন যে “আজ আমরা শিক্ষামন্ত্রীর personal secretary এবং বিকাশভবনের joint secretary র সাথে দেখা করে আমাদের পরবর্তী payscale এর সমানুপাতিক হারে সুষ্ঠু সমাধানের দাবি নিয়ে আলোচনা করি এবং আমাদের দাবীর পক্ষে প্রয়োজনীয় কাগজ দেখাই। ওনারাও স্বীকার করেছেন finance department এর কাছে কিছু clarify চেয়েছেন।
আমাদের দাবী লিখিত ভাবে দিতে বলেছেন এবং প্রয়োজনীয় documents provide করতে বলেছেন। প্রাথমিক শিক্ষকদের স্বার্থে uuptwa লড়ছে, লড়বে।
সন্দীপ ঘোষ (রাজ্য সভাপতি ), পৃথা বিশ্বাস (রাজ্য সম্পাদিকা )”

উক্ত পদক্ষেপের পর মনে করা হচ্ছে যে প্রাথমিক শিক্ষকদের যে বেতন কাঠামো পরিবর্তন নিয়ে ধোঁয়াশা সেটা কিছু দিনের মধ্যে কেটে যেতে চলেছে। কারণ কিছুদিন আগে 26শে জুলাই শিক্ষা দপ্তর থেকে যে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল সেখানে পরিস্কার ভাবে উল্লেখ করা ছিল যে প্রশিক্ষণ প্রাপ্তরা যাদের গ্রেড পে 2600 তাদের 3600 করা হবে সঙ্গে পে বেন্ড 2 থেকে পে বেন্ড 3 তে অর্থাৎ 7100 থেকে 37600 করা হবে। এবং যারা প্রশিক্ষণহীন তাঁদের 2300 থেকে 2900 করা হলেও পে বেন্ড এর কোনও পরিবর্তন করার কথা বলা হয় নি।এর সঙ্গে এও বলা হয় নি কোন ফর্মুলা বা ফিটমেন্ট ফেক্টর অনুসারে ঐ সমস্ত শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি করা হবে।

ফলে শিক্ষকদের মধ্যে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হচ্ছিল এবং কিছু dpsc থেকে যখন শুধু গ্রেড পে নিয়ে নোটিশ পাব্লিশ করা হয়েছিল তখন সেই ধোঁয়াশা চরম আকার ধারণ করে।

আজ এবং গতকালকের uuptwa নেতৃত্ব ,আমলাদের সঙ্গে এই আলোচনা কিছুটা হলেও তাঁদের ধোঁয়াশা কিছুটা দূর করবে বলে মনে করা হচ্ছে এবং আরকিছু দিনের মধ্যে হয়তবা এই সমস্যার সমাধানের জন্য শিক্ষা দপ্তর আরও কিছু নোটিশ জারি করবে।

আপনাদের সুবিধার্থে সাম্ভাব্য একটি CALCULATOR নীচে দেওয়া হল। যে সমস্ত নোটিশ পাবলিশ হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে শুধু মাত্র গ্রেড পে বৃদ্ধি কথা বলা হচ্ছে। যদিও বিভিন্ন সোর্স মারফৎ খবর পাওয়া যাচ্ছে যে একটি নির্দিষ্ট “ফর্মুলার(ফিটমেণ্ট ফ্যাক্টর) মেনে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি করা হবে। সেটা দেখতে এখানে ক্লিক করুন এবং শুধু গ্রেড পে অনুসারে বেতন বৃদ্ধি দেখতে  এখানে ক্লিক করুন   আপনার বর্ধিত গ্রেড পে SELECT করে বর্তামান বেসিক পে( জুলায় ২০১৯) দিন হিসাব চলে আসবে। কিন্তু আবার বলা বাহুল্য এখনও সরকারি কোনও বেতন বৃদ্ধি বা ফর্মুলা সামনে আসেনি। সবই সাম্ভাভ্য হিসাব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here