“পাড়ায় শিক্ষালয়”-WB Parai Sikhaloi New Scheme |WB New Scheme for Primary school Students 2022

0
67

WB Parai Sikhaloi New Scheme – রাজ্যে যখন স্কুল খোলা নিয়ে তোড়জোড় শুরু হয়েছে এবং বিভিন্ন প্রস্তাব যেতে শুরু করেছে নবান্নে। তখন স্কুল শিক্ষা দপ্তর থেকে প্রাথমিক স্কুল নিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ খবর সামনে এসেছে। জানা গিয়েছে এবার রাজ্যের প্রাথমিক স্কুলগুলিতে নতুন এক প্রকল্প “পাড়ায় শিক্ষালয়”(WB Paray Sikhalaya New Scheme) বলে এক নতুন প্রকল্পের সূচনা করতে চলেছে রাজ্য শিক্ষা দপ্তর।

এর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হতে পারে আগামী সোমবার দিন এবং এই ঘোষণা করতে পারেন মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী বলে জানা গিয়েছে ।করোনাকালে এবার পাড়ায় পাড়ায় স্কুল কচি কাচাদের জন্য ।প্রাইমারি ক্লাস গুলতে মূলত ক্লাস 1 থেকে 4 অব্দি ক্লাসে এই প্রকল্প এর সূচনা হতে চলেছে ।

“পাড়ায় শিক্ষালয়”,WB New Scheme for Primary school Students,WB Parai Sikhaloi New Scheme

WB_Parai_Sikhaloi_New_Scheme
WB Parai Sikhaloi New Scheme

To Download Notice About Paray Sikhalaya – Click Here

প্রাথমিকে স্কুলের কচিকাঁচাদের পড়াশুনার জন্য রাজ্যের নতুন প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে “পাড়ায় শিক্ষালয়”।

যে খবর বেরিয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে “WB Paray Sikhalaya Scheme” প্রকল্পে পড়ুয়াদের পাড়ায় পাড়ায় গিয়ে ক্লাস নেবেন প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকা, পার্শ্ব শিক্ষকরা এবং শিক্ষা সহায়করা।

জানা যাচ্ছে এর ফলে উপকৃত হবে রাজ্যে প্রায় 90 লক্ষ প্রাথমিক পড়ুয়া। বেশ কিছুদিন ধরেই খবরাখবর আসছিল যে,রাজ্যে স্কুল খুব তাড়াতাড়ি খুলে যেতে চলেছে । এর জন্য শিক্ষা দপ্তরের তরফে একটি প্রস্তাব ও পাঠানো হয়েছে নবান্নে বলে খবর।

WB Parai Sikhaloi New Scheme
WB New Scheme for Primary school Students

রাজ্যে অনলাইনে পড়াশুনা চলছে ।তার সঙ্গে সঙ্গে টিভিতেও ক্লাস শুরু হয়েছে। কিন্তু কচিকাঁচাদের কাছে সেটা ততটা আয়ত্তের মধ্যে আসছে না বলে খবরে উঠে এসেছে।

তাই শিক্ষক-শিক্ষিকারা বারবার আবেদন জানাচ্ছিলেন যে স্কুল তাড়াতাড়ি করে খুলে দেওয়া হোক। যাক তার মাঝে আজকের এই নতুন নিউজ টা একটু হলেও শিক্ষক-শিক্ষিকা, অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীদের কাছে একটি আনন্দের খবর হয়ে উঠবে।

যে খবরটি বেরিয়ে আসছে সেখানে দেখা যাচ্ছে আগামী সোমবার সরকারিভাবে এইযে প্রকল্প সূচনা করতে পারেন মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু ।

WB New Scheme for Primary school Students

করোনাকালে প্রায় দুই বছর বেশি প্রাথমিক স্কুলের পঠন পাঠন বন্ধ রয়েছে।যদিও স্কুল খোলা রয়েছে বিভিন্ন মিড ডে মিল প্রকল্প, বই দেওয়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন একাডেমিক কাজের জন্য ।

ক্লাসরুম কচিকাঁচাদের কাছে বিপজ্জনক হতে পারে বলে মনে করছে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ মহল । তাই এই কথা মাথায় রেখে খোলা জায়গায় পড়ুয়াদের ক্লাস নেবেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা বলে প্রাথমিকভাবে ঠিক হয়েছে।তার জন্য “Paray Sikhalaya Scheme” প্রকল্পের সূচনা করতে চলেছে রাজ্য শিক্ষা দপ্তর।

যে খবরটি সামনে এসেছে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে পাড়ায়- “Paray Sikhalaya” যে প্রকল্পের শুভসূচনা হতে চলেছে, সেখানে পড়ুয়াদের পাড়ায় পাড়ায় গিয়ে ক্লাস নেবেন রাজ্যের প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারা, এর সঙ্গে পার্শ্বশিক্ষকেরা ,তার সঙ্গে শিক্ষা সহায়তারাও।

এই মুহূর্তে প্রাথমিক স্কুলের জন্য এই চিন্তাভাবনা করেছে রাজ্য সরকার । পরে এই মডেল সাফল্য লাভ করলে সেটা আরও ক্লাসের জন্য ভাবনা চিন্তা করতে পারে দপ্তর!!

তবে বাস্তবে কতটা সফল হয় এই নতুন প্রকল্প সেটাই দেখার। কারণ এটা একটা বিকল্প ক্লাসের ভাবনা বলা যেতে পারে। শিক্ষা দপ্তর এর তরফ থেকে দীর্ঘদিন ধরে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকার জন্য পড়ুয়াদের পড়াশোনার বিঘ্ন ঘটছে। যদিও অনলাইনে এবং টিভির মাধ্যমে পঠন-পাঠন কিছুটা শুরু হলেও সেটা ছোট কচিকাচাদের কাছে আয়ত্তের বাইরে বলে মনে করা হচ্ছে ।

তাই বিশেষজ্ঞদের ধারণা এভাবেই যদি চলতে থাকে তাহলে পড়ুয়ারা স্কুলবিমুখ হয়ে যাবে। পড়ুয়াদের স্কুলবিমুখ রুখতে, শিক্ষকরা দাবি তুলছে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব স্কুল খুলে দেওয়ার জন্য এবং এই দাবিতে সারা দিয়ে শিক্ষা দপ্তর একটি প্রস্তাবও পাঠিয়েছে নবান্নে।

আজকে যা খবর সেখানে দেখা যাচ্ছে নবান্ন এই প্রস্তাবে সাময়িকভাবে সায় দিয়েছে ।এর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীও প্রস্তাবে সাময়িক ভাবে গ্রহণ করেছে!!

সেক্ষেত্রে পরিস্থিতি ঠিক থাকলে আগামী পয়লা ফেব্রুয়ারি থেকে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির জন্য ক্লাস শুরু হয়ে যেতে পারে। যদি আর কোন সমস্যা না থাকে তাহলে । কিন্তু তার আগে অবশ্যই নবান্ন এবং শিক্ষাদপ্তর ,স্বাস্থ্য দপ্তরের সঙ্গে কথা বলে কিভাবে স্কুল খোলা যায় সেই নিয়ে একটি পর্যালোচনা করছে বলেও খবর সামনে এসেছে।

অনলাইনে কচিকাচাদের পড়াশোনার সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর ক্ষেত্রে যেমন সমস্যা রয়েছে তেমনি প্রান্তিক এবং গ্রামীণ এলাকায় পরিবারের কাছে অনলাইনে ক্লাস এর সুবিধা ততটা হচ্ছেনা আর্থিক অভাবের জন্য। এতদিন ধরে স্কুল বন্ধ রয়েছে পঠন পাঠন বন্ধ রয়েছে। তাই কিভাবে এই সমস্যা দূর করা যায় তাই শিক্ষা দপ্তর থেকে এই “পাড়ায় শিক্ষালয়ের” যে নতুন প্রকল্প, সেটা আনা হচ্ছে । দেখা যাক এই পদক্ষেপ কতটা ফলপ্রসূ হয়।

ইতিমধ্যে রাজ্যের বেশকিছু শিক্ষক-শিক্ষিকারা ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের মাধ্যমে ক্লাস নেওয়া শুরুও করেছে। যদিও এর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হতে পারে আগামী সোমবার এবং সেটা করবেন মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

এই “Paray Sikhalaya” সম্পর্কে আরও জানতে এখানে ক্লিক করুন, নোটিশ দেখতে এখানে ক্লিক করুন(যখন আসবে এখানে আপলোড করে দেওয়া হবে)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here